ঢাকামঙ্গলবার , ১৯ ডিসেম্বর ২০২৩
  1. ই পেপার
  2. ক্যাম্পাস
  3. খেলা
  4. চাকরি
  5. জাতীয়
  6. জীবনযাপন
  7. ধর্ম
  8. পাঠক কলাম
  9. পাবনা জেলা
  10. বাণিজ্য
  11. বাংলাদেশ
  12. বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
  13. বিনোদন
  14. বিশেষ সংবাদ
  15. বিশ্ব

ফরিদপুরে ডিসি অফিস থেকে ১২টি ল্যাপটপ চুরি

বার্তা কক্ষ
ডিসেম্বর ১৯, ২০২৩ ২:৫২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ফরিদপুর প্রতিনিধি : ফরিদপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের রেকর্ড রুম শাখা থেকে ১২টি ল্যাপটপ চুরি হয়েছে। এ ঘটনায় ফরিদপুরের রেকর্ড কিপার মো. আবু বকর সিদ্দীক (৫২) বাদী হয়ে মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) বিকেলে ফরিদপুর কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এর আগে গত রবিবার (১৭ ডিসেম্বর) রাতের কোনো এক সময় এ চুরির ঘটনা ঘটে শহরের কোর্ট পাড় এলাকায় অবস্থিত ওই অফিসে।

জানা গেছে, রেকর্ড রুমটি অত্যন্ত সংরক্ষিত এলাকা হিসেবে পরিচিত শহরের জজ কোর্ট, জেলা প্রশাসকের বাস ভবন ও জেলা জজের বাসভবনের উত্তরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের লাল রঙের একটি ভবনে অবস্থিত। এটি সীমানা প্রাচীর দিয়ে ঘেরা। সামনে একটি গেট রয়েছে। লাল ভবনে ঢুকতে হলে আগে একটি কাঠের দরজা এবং তারপর একটি কলাপসিবল গেট পার হতে হয়। যে কক্ষে চুরির ঘটনা ঘটেছে সেটি দোতলা ভবন বিশিষ্ট রেকর্ড রুমের দোতলায় দক্ষিণ পাশে অবস্থিত।

মামলার এজাহারে রেকর্ড কিপার মো. আবু বকর সিদ্দীক জানান, গত রবিবার (১৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে আমার অফিস শাখার সকল কর্মচারীদের নিয়ে রুমের সকল দরজা এবং বাইরের গেটের তালা বন্ধ করে অফিস ত্যাগ করি। গতকাল সোমবার (১৮ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা ৫০ মিনিটে আমি এবং আমার দুইজন সহকর্মী মো. বাহাদুর আলম ও মো. কাওছার আলী অফিসে আসি। কাওছার আলী গেটের তালা খুললে আমরা গেটের ভেতরে প্রবেশ করে দেখতে পাই নীচ তলার অফিস কক্ষের গেটের প্রথম কাঠের দরজার কব্জা ভাঙা এবং অপর পাশের কয়রার সঙ্গে তালা লাগানো অবস্থায় দেখতে পাই। কেচি গেটের তালা অক্ষত অবস্থায় আছে। উক্ত গেটের তালা খুলে আমরা তিনজন দোতলা অফিস কক্ষে উঠি। দোতলায় উঠে প্রথম দরজার তালা ভাঙা এবং দ্বিতীয় লোহার গেটের তালা কাটা অবস্থায় দরজা খোলা দেখতে পাই।

আমরা তিনজন দোতলা অফিস কক্ষে উঠি। অফিসের মূল্যবান কাগজপত্র মেঝেতে এলোমেলো ছড়ানো ছিটানো অবস্থায় পড়ে আছে। অফিসের আলমিরা ভাঙা এবং খোলা দেখতে পাই। ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার রুমের স্টিলের আলমিরা ভাঙা এবং খোলা দেখতে পাই।

পরে খোঁজ করে দেখা যায়, অফিস কক্ষের পাঁচটি টেবিল থেকে ৫টি ল্যাপটপ, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার আলমিরা থেকে চারটি ল্যাপটপ এবং অফিস সহকারী মো. মিজানুর রহমানের আলমিরা থেকে তিনটি ল্যাপটপসহ সর্বমোট ১২টি ল্যাপটপ চুরি হয়েছে।

রেকর্ডরুম শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার দায়িত্বে নিয়োজিত ফরিদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. লিটন আলী বলেন, ঘটনাটি পুলিশকে জানানো হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা ও ভবনের ত্রুটি মেরামতের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনার তদন্তে জেলা প্রশাসক কামরুল আহসান তালুকদার তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) রামানন্দ পালকে এ কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে।

তদন্ত কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন, রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর (আরডিসি) দীপ জন মিত্র ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার মো. সাজিদুল মাহমুদ। এ কমিটি মঙ্গলবার থেকে তদন্ত কাজ শুরু করেছেন। কমিটিকে তিন কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম বলেন, রেকর্ড রুমে চুরির ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দৈনিক এরোমনি প্রতিদিন ডটকম তথ্য মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধন প্রক্রিয়াধীন অনলাইন নিউজ পোর্টাল