ঢাকাবুধবার , ২০ ডিসেম্বর ২০২৩
  1. ই পেপার
  2. ক্যাম্পাস
  3. খেলা
  4. চাকরি
  5. জাতীয়
  6. জীবনযাপন
  7. ধর্ম
  8. পাঠক কলাম
  9. পাবনা জেলা
  10. বাণিজ্য
  11. বাংলাদেশ
  12. বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
  13. বিনোদন
  14. বিশেষ সংবাদ
  15. বিশ্ব
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আনোয়ারার কোরিয়ান ইপিজেডে ৫শ শয্যার হাসপাতালের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

বার্তা কক্ষ
ডিসেম্বর ২০, ২০২৩ ১:০৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

আতিকুল হা-মীম , আনোয়ারা, চট্টগ্রাম : বিশ্বমানের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে আনোয়ারায় কোরিয়ান এক্সপোর্ট প্রসেসিং জোনে (কেইপিজেড) তাদের নিজস্ব ৯০ একর জমিতে ৫০০ শয্যার ‘ইয়ংওয়ান কেইপিজেড মেডিকেল কমপ্লেক্স’ নামের একটি হাসপাতাল নির্মাণ করছে। গত শনিবার বিকেলে কোরিয়ান ‘ইয়নসেই ইউনিভার্সিটির সহযোগিতায় কেইপিজেডের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় এ হাসপাতাল নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে।

এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চসিক মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, কেইপিজেড এর হাসপাতাল নির্মাণের উদ্যোগ নিঃসন্দেহে একটি মহৎ এবং গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ। এ হাসপাতালের মাধ্যমে দক্ষিণ চট্টগ্রামের মানুষ আন্তর্জাতিক মানের চিকিৎসা সুবিধা লাভ করবে। শুধু তাই কেইপিজেডের ৫০০ শয্যার হাসপাতালটি চালু হলে স্থানীয়রা স্বাস্থ্য খাতে বিশেষ সুবিধা পাবে এবং স্বাস্থ্য সেবায় এ হাসপাতাল গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। আমি বাংলাদেশ–কোরিয়ার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের সুদৃঢ়তা কামনা করি ।

কোরিয়ান ইপিজেড (কেইপিজেড) কর্পোরেশন (বিডি) লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শাহজাহানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত কোরিয়ান রাষ্ট্রদূত পার্ক ইয়ং–সিক, ইয়নসেই বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য বিভাগের প্রেসিডেন্ট এবং সিইও ডা. ডংসুপ ইউন, চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ডা. মোহাম্মদ ইসমাঈল খান।

অন্যান্যদের মধ্যে আনোয়ারা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরী, কর্ণফুলী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক চৌধুরীসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। এই হাসপাতালের সাথে থাকবে বিশ্বমানের মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ও নার্সিং কলেজ। এই হাসপাতালে থাকবে হেলিকপ্টার ল্যান্ডিং ব্যবস্থা, দুরারোগ্য রোগীর সাথে পরিবারের রাত্রি যাপন ও উন্নত যাতায়াতসহ আনুষঙ্গিক সুযোগ সুবিধা। দেশি–বিদেশি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরেরা হাসপাতাল পরিচালনার দায়িত্বে থাকবেন। আন্তর্জাতিক মানদণ্ড বজায় রেখে চিকিৎসা সহায়তা পরিচালিত হবে ।

এই প্রকল্পটির উদ্দেশ্য সম্পর্কে ইয়ংওয়ান কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান এবং সিইও কিহাক সাং বলেন, আমাদের প্রাথমিক লক্ষ্য হলো কোরিয়ান ইপিজেডে কর্মরত শ্রমিক কর্মচারী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের উচ্চ মানের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা। ধারাবাহিকভাবে এই হাসপাতালটি কেইপিজেডের আশেপাশ অঞ্চলের মানুষের স্বাস্থ্য সেবা রক্ষায় কাজ করবে। হাসপাতালটি এই অঞ্চলের সামগ্রিক উচ্চ মানের স্বাস্থ্যসেবাতে অবদান রাখবে এবং বাংলাদেশের জনগণকে উপকৃত করবে। ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল চালু করার পর পর্যায়ক্রমে একটি নার্সিং কলেজ ও একটি মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হবে বলে জানান তিনি।

দৈনিক এরোমনি প্রতিদিন ডটকম তথ্য মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধন প্রক্রিয়াধীন অনলাইন নিউজ পোর্টাল